Wednesday, 4 May 2016

লোহাগাড়ার চরম্বার আদর্শগ্রামে বখাটে শহীদের নির্যাতনে অতিষ্ট গ্রামবাসী

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার চরম্বা ইউনিয়নের মাইজবিলা গ্রামে প্রতিষ্টিত সরকারের আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় ৪০টি পরিবারকে নিয়ে আদর্শগ্রাম, গ্রামের অধিকাংশ মানুষ খেটে খাওয়া ছিন্নমুল ও দরিদ্র, দিনমজুরি সহ নানা কর্মকান্ড পরিচালনার মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। এই ৪০টি পরিবারের দরিদ্র মানুষের কাছে মুর্তিমান আতংক বখাটে দোকানদার শহীদুল ইসলামের পরিবার, তার পিতার নাম ফরমান আলী, শহীদ সিলেট থেকে ফেরারী হয়ে লোহাগাড়ায় এসে আত্বগোপন করে আছে বলে জানিয়েছেন তার মামা ফোরকান আহমদ।

এলাকাবাসীরা জানায় শহীদ একজন মাদকসেবী ও বিক্রেতা সে আদর্শ গ্রামের আওতাভুক্ত জায়গায় অবৈধভাবে দোকানগৃহ নির্মান করে জুয়ার আড্ডা বসায় নিয়মিত, শিশু-কিশোরীদের বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে জুয়ার আড্ডা থেকে অশালীন আচরন করা হয়, উক্ত গ্রামের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী শাহেনা আক্তার জানায় বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে শহীদের জুয়ার আড্ডা থেকে তাকে উদ্দেশ্য করে বাজে মন্তব্য করা হয় এসব বিষয়ে গ্রামবাসী প্রতিবাদ জানালে তাদের উপর নেমে আসে শহীদ ও তার স্ত্রী ফাতেমার নির্যাতনের খড়গ, পাশাপাশি মামলায় ফাসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখানো হয়, নেপথ্যে থেকে কলকাঠি নাড়েন একজন সাবেক ইউপি সদস্য তিনিই শহীদের সকল শক্তির উৎস।

অভিযুক্ত শহীদুল ইসলামের কাছে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সে সমস্থ বিষয় মিথ্যে বলে দাবী করার চেষ্টা চালায় পরে সমগ্র গ্রামবাসী তার সামনে এসে প্রতিবেদকের কাছে তাদের অভিযোগ জানাতে থাকলে অভিযোগ মেনে নিতে বাধ্য হয় বখাটে শহীদুল ইসলাম।

চরম্বা ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য আয়শা বেগম মুঠোফোনে প্রতিবেদককে জানান তিনি এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেছেন।

মাইজবিলা আদর্শ গ্রামবাসী ছৈয়দ নুর, পঙ্গু ভিক্ষুক ছবুর, সামশুল আলম, মনজুর, ইসহাক ও আবদুর রহিম বলেন সকল গ্রামবাসী মিলে এবিষয়ে ২৯ শে এপ্রিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে সকল গ্রামবাসীর সাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি, অভিযোগ দায়ের করার পর শহীদ ও তার স্ত্রী ফাতেমা আমাদের মারধর সহ নানা প্রকারের নির্যাতন চালিয়ে এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে।

বখাটে দোকানদার শহীদুল ইসলামের নির্যাতনের শিকার গ্রামবাসী বাচাঁতে কি ধরণের পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন জানতে চাইলে লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ শাহজাহান পিপিএম বলেন, আমি একজন এসআই সহ পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পাটিয়েছিলাম তবে বখাটে শহীদ পলাতক থাকায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নী, অতিসত্বর তাকে আটক পূর্বক আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ ফিজনুর রহমান বলেন এই সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করব।

No comments:

Post a Comment