Friday, 16 December 2016

রিলিজ স্লিপ এ ভর্তির প্রয়োজনীয় তথ্য

.
#কিছু প্রশ্ন এর উত্তর....... 
.
১) রিলিজ স্লিপ কি মাইগ্রেশন করা যায় কি?
উত্তর : না
.
২) রিলিজ স্লিপ এ কি কলেজ মাইগ্রেশন করা যায়?
উত্তর: না
.
৩) টাকা দিয়ে কি ভর্তি হওয়া যাবে না?
উত্তর : না
.
৪)আমার বিষয় পছন্দ হয়নি আমি কি ২য় রিলিজ স্লিপে আবেদন করতে পারব?
উত্তর : ভর্তি না হলে পারবে।
.
৫) ২য় রিলিজ স্লিপ কি দেয়?
উত্তর : সিট খালি থাকা সাপেক্ষ দেয়....!
.
৬) ভর্তি হতে কি কি লাগে?
উত্তর : ভালো হয় কষ্ট করে কলেজ নোটিশ চেক করলে।
.
৭) অনলাইনের ফরম কি প্রীন্ট করতে হবে?
উত্তর : হ্যাঁ ২ কপি করতে হবে। কলেজ আর স্টুডেন্ট কপি।
.
৮) ফরম কি ভাবে পুরন করব?
উত্তর : ফরম সঠিক ভাবে পুরন করতে হবে.... কম্পিউটার দোকানে গিয়ে বোঝে শুনে কাজ করতে হবে....। কোন ভুল যেন না হয়।
.
৯)আমার ওমুক কার্ড নাই হারিয়ে গেছে কি করব?
উত্তর : আপনি জিডি করে জিডি কপি জমা দিয়ে ভর্তি হতে পারবেন। সমস্যা না।
.
১০) ভাই ভুল করে ফরম পূরনে ভুল করে ফেলছি কি করব?
উত্তর : আপনাকে গাজীপুর গিয়ে ঠিক করে আনিয়ে দিতে হবে।
.
১১) ভাই কোন কলেজে কত টাকা লাগে....?
উত্তর : সেটা কলেজে জিজ্ঞেস করুন।
.
.
.
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষ রিলিজ স্লিপে ভর্তির সময়সীমাঃ
.
★রিলিজ স্লিপে মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনলাইনে চূড়ান্ত ভর্তির ফরম প্রিন্ট করে রেজিস্ট্রেশন ফিসহ সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দেয়ার সময়সীমাঃ ১৪/১২/২০১৬ থেকে ২০/১২/২০১৬
.
.
.
কিছু ভিন্ন প্রশ্ন :
.
.
১)প্রশ্নঃ আমার রিলিজ স্লিপে চান্স হয়নি। আমি কি তাহলে আর অনার্স পড়তে পারবো না? ২য় রিলিজ স্লিপ কি দেবে?
উত্তরঃ সাধারণত ১ম রিলিজ স্লিপে সুযোগ না হলে আসন খালি থাকা সাপেক্ষে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ১ম রিলিজ স্লিপের মত আবারো রিলিজ ২য় রিলিজ স্লিপের আবেদনের সুযোগ দেয়। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তি কার্যক্রমের ২য় রিলিজ স্লিপের অনলাইন আবেদন ৩০ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখ থেকে শুরু হয়ে ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখ পর্যন্ত চলে।
.
২)প্রশ্নঃ আমি কি রিলিজ স্লিপে যে সাবজেক্ট পেয়েছি সেটা কি মাইগ্রেশন করে অন্য সাব্জেক্টে যেতে পারবো?
উত্তরঃ ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ আছে রিলিজ স্লিপে আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের কোর্স পরিবর্তনের কোন সুযোগ থাকবে না৷ অর্থাৎ আপনার সাবজেক্ট পরিবর্তনের আর কোন সুযোগ নেই।
.
৩)প্রশ্নঃ আমি রিলিজ স্লিপে সুযোগ পেয়েছি। ভর্তি হতে কি কি কাগজপত্র লাগবে?
উত্তরঃ রিলিজ স্লিপে সুযোগপ্রাপ্তদের নিম্নোক্ত কাগজপত্র লাগবেঃ
.
.
*অনলাইন থেকে মূল আবেদন ফর্মের – ২ সেট ( অবশ্যই A4 অফসেট সাদা কাগজেকালার প্রিন্ট করতে হবে)।
.
*প্রাথমিক আবেদনের প্রবেশপত্র -২সেট।
.
*পাসপোর্ট সাইজের ছবি ৪টি এবং স্ট্যাম্প সাইজ ৪টি পেছনে নাম লিখে দিতে হবে (কলেজভেদে কম বেশি হতে পারে)।
.
*এসএসসি ও এইচএসসি এর সনদপত্র/প্রশংসা পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
.
*এসএসসি ও এইচএসসি মূল নম্বরপত্রের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
.
*এসএসসি ও এইচএসসি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট
.
*টাকা জমার রশিদ।
.
*চারিত্রিক সনদপত্র (সাধারণত লাগেনা, কোন কোন কলেজে লাগতে পারে) – ২ টি।
.
.
উল্লেখ্য, সকল কাগজপত্র ২ কপি করে ২সেট বানাতে হবে যার এক কপি বিভাগীয় সেমিনারে এবং এক কপি অফিসে জমা দিতে হবে।
.
#ভর্তি ফিঃ ভর্তি ফি কলেজ ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে তাই যার যার কলেজের নোটিশ বোর্ড থেকে জেনে নেওয়াই ভালো। সাধারণত সরকারী কলেজ হলে ৪-৫ হাজার আর বেসরকারী কলেজে হলে ১০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।
.
.
.ভিন্ন প্রশ্ন:
.
১) ডিগ্রী আবেদন কবে থেকে?
উত্তর : Nu কোন নোটিশ দেয় নাই।
.
২) প্রফেশনালে এখন আবেদন করা যাবে?
উত্তর : হ্যাঁ যাবে।
.
৩) প্রফেশনালের আবেদনের শেষ সময় কখন?
উত্তর : ২০ ডিসেম্বর।
.
৪)Law কি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পড়া যায়?
উত্তর : হ্যাঁ
.
.
.
শেয়ার করার মাধ্যমে অন্য কে জানার সুযোগ করে দিন

Sunday, 4 December 2016

লোহাগাড়ার চরম্বায় আওয়ামীলীগ নেতাকে মারধর করেছে প্রতিপক্ষরা



চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চরম্বা ইউনিয়নের উত্তর চরম্বা কাজীর পাড়া এলাকার পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক প্রবীণ আ’লীগ নেতাকে প্রতিপক্ষরা মারধর করেছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। আহত ব্যক্তির নাম আবদুল নবী (৭০)। সে উল্লেখিত এলাকায় মৃত বদিউর রহমানের পুত্র। গত ২৯ নভেম্বর রাত ৮ টায় এই ঘটনাটি ঘটেছে। এ ব্যাপারে আহত আবদুল নবী বাদী হয়ে ঐ এলাকার মৃত ইসমাইলের পুত্র নুরুল ইসলাম (৫০), খোরশেদ (২৬), আবছার (৩৫), মহিউদ্দিন (৩০), আবদুল হাই এর পুত্র মহি উদ্দিন(৩০), মৃত সোলতান আহমদের পুত্র নুরুল ইসলাম(২৮) সহ আরো ২/৩ জনকে অজ্ঞাতনামা বিবাদী করে লোহাগাড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে প্রকাশ, উল্লেখিত সময়ে কাজির পাড়া এলাকার আবদুল ওদুদের চায়ের দোকানের সামনে পূর্ব বিরোধের জের ধরে গাছের বাটাম, বড় দা, কিরিচ দিয়ে উল্লেখিত বিবাদীগণ সন্ত্রাসী দলবল নিয়ে অতর্কিতভাবে মারধর করে মারাতœক ভাবে মাথায় প্রচন্ড জখম হয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে স্ত্রী ছেনোয়ারা বেগম (৫৫) ও পুত্র আবদুল মঈন (২২) কেও প্রতিপক্ষরা মারধর করে। পরবর্তীতে স্থানীয়রার তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেন। এ ব্যাপারে আহত প্রবীন আ’লীগ নেতা আবদুল নবী বলেন, প্রতিপক্ষরা নুরুল ইসলাম, এরশাদ ও মহি উদ্দিনের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী দলবল মিলে দোকানে চা খাওয়া অবস্থায় অতর্কিতভাবে তাকে হামলা চালায়। তিনি আরো বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে ধারণ ও লালন করে আসছি। এছাড়াও তিনি আরো জানিয়েছেন, প্রতিপক্ষরা জামায়াত শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত। আহতের পুত্র আবদুল মঈন উক্ত প্রতিনিধিকে জানান, উল্লেখিত বিবাদীগণ তার বাবা, মা ও তাকে চড়াও হয়ে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা চালায়। অন্যদিকে অভিযুক্তকারীদের মুঠোফোনে না পাওয়ায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয় নি।